পুরো »

দু’সপ্তাহের মধ্যেই গিনেস বুকের ফলাফল

আহসান হাবীব | 2014-03-26 19:32:47

ঢাকা, ২৬ মার্চ ২০১৪  : দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের অংশগ্রহণের মধ্যে দিয়ে আজ অনুষ্ঠিত হলো জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়ার মহতি আয়োজন। রাজধানীর জাতীয় প্যারেড গ্রাউন্ডে উপস্থিত তিন লাখেরও বেশি মানুষের কন্ঠে একই সাথে একই সুরে ধ্বনিত হলো ‘আমার সোনার বাংলা...। গাইলো বাংলাদেশ। গাইলো বিশ্ব বাঙালী।


জাতীয় সঙ্গীত গাইবো, বিশ্ব রেকর্ড গড়বো- এই শ্লোগানে সমগ্র জাতি একাত্ম হয়ে অংশ নেয় বাংলাদেশকে আরেকটি বড় অর্জনের দিকে নিয়ে যেতে। সবাই নিজের চেতনাকে উন্মুক্ত করে গাইলেন। এখন গিনেস বুকের ফলাফলের অপেক্ষা। কখন আসবে সেই ফলাফল। কেমন করে আসবে?

সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেন, সবাই এক সময়ে, একসুরে, উচ্চস্বরে জাতীয় সঙ্গীত গাইছেন কিনা- এটি ছিলো একটি বড় চ্যালেঞ্জ। কারণ শতকরা ৫ শতাংশ মানুষও যদি কন্ঠ না মেলান তাহলে আয়োজনটি গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের কাছে বিবেচিত হবে না।

তিনি জানান, জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে বিশ্ব রেকর্ড গড়ার এই আয়োজনে আনুষ্ঠানিক গণনা অনুযায়ী ২ লাখ ৫৪ হাজার ৬৮১ জন অংশ নিলেও জাতীয় প্যারেড স্কোয়ারে সমবেত হয়েছিলেন তিন লাখের ও বেশি মানুষ। সমবেত কন্ঠে গাওয়া জাতীয় সঙ্গীত রেকর্ড করাসহ প্রয়োজনীয় শর্তগুলো পূরণ হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণের জন্য গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের চুল চেরা বিশ্লেষণ করে তারা শীঘ্রই ফলাফল জানাবেন।
দু’সপ্তাহের মধ্যেই গিনেস বুকের ফলাফল হাতে এসে পৌঁছাবে বলে আশা প্রকাশ করেন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সামরিক-বেসামরিক পরিদপ্তরের মহাপরিচালক কমোডর কাজী এমদাদুল হক।